নাঙ্গলকোটে অস্ত্র ঠেকিয়ে ১০টি গরু লুট 

প্রকাশিত: ৩:৩৪ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০২৪

নাঙ্গলকোটে অস্ত্র ঠেকিয়ে ১০টি গরু লুট 

মাঈন উদ্দিন দুলাল- কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে একটি খামারে প্রহরীকে অস্ত্র  ঠেকিয়ে ১০টি গরু লুট করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল সোমবার গভীর রাতে উপজেলার আদ্রা দক্ষিণ ইউনিয়নের পুজকরা গ্রামে মায়ের দোয়া ইট ভাটার গরুর খামারে এ লুটের ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে মঙ্গলবার সকালে খামারের মালিক নাঙ্গলকোট থানায়  লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ।

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে খামারের দায়িত্বে থাকা ফরিদুল ইসলাম ও রুহুল আমিন গরু গুলোকে খাবার দিয়ে ঘুমিয়ে যান।  রাত ২টার দিকে মুখোশ পরা ১০-১৫ জনের একটি গ্রুপ হাতে পিস্তল, চুরি, হকিস্টিক ও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে নিয়ে ইট ভাটার ভিতরে  প্রবেশ করে পাহারাদার নুরে আলমকে বেঁধে ফেলে। পরে খামারের দায়িত্ব থাকা অন্য দুই শ্রমিককেও ঘুম থেকে ডেকে তুলে পিস্তল ঠেকিয়ে হাত-পা বেঁধে মুখে স্কচটেপ মেরে দেয়। এ সময় খামার থেকে ১০টি গরু পিকাপ তুলে নিয়ে যায় ডাকাতরা। ভোর রাতের দিকে স্থানীয় কামাল ড্রাইভার খামারের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় শ্রমিকদের এ অবস্থা দেখে খামার মালিক আনোয়ার হোসাইনকে ফোন করেন বিষয়টি জানান।

 

খামারের মালিক আনোয়ার হোসাইন বলেন, আমি দীর্ঘদিন ধরে খামারে গরু ব্যবসা করে আসছি। রবিবার গভীর রাতে আমার খামার থেকে ১০-১৫ জনের একটি ডাকাত দল পাহারাদারদের অস্ত্র  ঠেকিয়ে বিদেশি জাতের ৭টি গাভী, ২টি মহিষ ও একটি ষাড় নিয়ে যায়। এতে আমার প্রায় ২৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। তিনি রাতে  পুলিশের টহল আরো বাড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি তার গরুগুলো উদ্ধারের দাবি জানান।

 

আদ্রা দক্ষিণ ইউপির চেয়ারম্যান ও ইট ভাটার মালিক আবু ইউছুফ কোম্পানি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ইট ভাটার ভেতরে খামার করে গরু ব্যবসা করে আসছেন আমার ভাই আনোয়ার হোসেন। সোমবার রাতে ডাকাতেরা অস্ত্রের মুখে পাহারাদারদের জিম্মি করে ১০টি গরু লুট করে নিয়ে যায় ।  কোরবানির ঈদকে ঘিরে নাঙ্গলকোটে গরু চুরি ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে ।  তিনি রাতে  পুলিশের টহল বৃদ্ধি ও গরুগুলো উদ্ধারের দাবি জানান।

 

নাঙ্গলকোট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ করছেন। খামারটি কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক সড়কের পাশে হওয়ায় গরু লুট করে দুর্বৃত্তরা সহজে পালিয়ে গেছে। গরুগুলো উদ্ধারে চেষ্টা করছি।

 

Please follow and like us:

ফেইসবুকে আমরা

সর্বশেষ সংবাদ